একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে


একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে

এএকটা রক্ত করবী ফুটবে বলে
দাঁড়িয়ে আছি

ঋতু আসে ঋতু যায়
ভীড় ঠেলা ট্রাম ব্যস্ত মানুষ
সব পেরিয়ে দাঁড়িয়ে আছি
ঝুপ করে ফের সন্ধ্যা নামে
ক্লান্ত পাখির ডানার ঝাঁপটা
শুনতে শুনতে দাঁড়িয়ে আছি
এই শহরে আবারও ফের
বসন্তেরই অপেক্ষাতে
দাঁড়িয়ে আছি

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
ভয় ধরল রাষ্ট্রযন্ত্রের
লাঠি হাতে তেড়ে এল সাঁজোয়া ভবন
টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটল
জলকামানে ভিজে গেল মানুষ যত
রাজপথে সব দাঁড়িয়ে ছিল
উজাড় হল গ্রাম থেকে গ্রাম
উজাড় হল বস্তি কত
দেশদ্রোহীর তকমা পেল
মানুষ যারা আওয়াজ দিল

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
একলা কৃষক ধানের আলে বসে থাকে
ফলিডলের শিশি হাতে
ধান থেকে সুখ উবে গেছে বহু আগে
‘মন কী বাতে, মন কী বাতে’

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
পিলপিলিয়ে মানুষ এল
শহর থেকে গ্রামের থেকে
বস্তি থেকে গঞ্জ থেকে
রাস্তা মোড়ে জটলা হল
দেশপ্রেমীরা দৌড়ে এল
গেরুয়া বসন দৌড়ে এল
ধরল কলার ধরল টুঁটি
স্বদেশ প্রেমের আঁটুনিতে
প্রেমের দশা ‘ফস্কা গেরো’
কটা রক্ত করবী ফুটবে বলে
দাঁড়িয়ে আছি
ঋতু আসে ঋতু যায়
ভীড় ঠেলা ট্রাম ব্যস্ত মানুষ
সব পেরিয়ে দাঁড়িয়ে আছি
ঝুপ করে ফের সন্ধ্যা নামে
ক্লান্ত পাখির ডানার ঝাঁপটা
শুনতে শুনতে দাঁড়িয়ে আছি
এই শহরে আবারও ফের
বসন্তেরই অপেক্ষাতে
দাঁড়িয়ে আছি

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
ভয় ধরল রাষ্ট্রযন্ত্রের
লাঠি হাতে তেড়ে এল সাঁজোয়া ভবন
টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটল
জলকামানে ভিজে গেল মানুষ যত
রাজপথে সব দাঁড়িয়ে ছিল
উজাড় হল গ্রাম থেকে গ্রাম
উজাড় হল বস্তি কত
দেশদ্রোহীর তকমা পেল
মানুষ যারা আওয়াজ দিল

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
একলা কৃষক ধানের আলে বসে থাকে
ফলিডলের শিশি হাতে
ধান থেকে সুখ উবে গেছে বহু আগে
‘মন কী বাতে, মন কী বাতে’

একটা রক্তকরবী ফুটবে বলে
পিলপিলিয়ে মানুষ এল
শহর থেকে গ্রামের থেকে
বস্তি থেকে গঞ্জ থেকে
রাস্তা মোড়ে জটলা হল
দেশপ্রেমীরা দৌড়ে এল
গেরুয়া বসন দৌড়ে এল
ধরল কলার ধরল টুঁটি
স্বদেশ প্রেমের আঁটুনিতে
প্রেমের দশা ‘ফস্কা গেরো’

Poem Rating:
Click To Rate This Poem!

Continue Rating Poems


Share This Poem